প্রকাশ: ০৫:৫৯:০০ পিএম, ১১ মার্চ ২০১৮
মেকআপে কিন্তু বুদ্ধি কমে যায়

গর্ভধারণের সময়টায় নারীদের নানা সাবধানতার মধ্য দিয়ে যেতে হয়। কারণ, হবু মায়ের সব সিদ্ধান্ত গর্ভের শিশুর ওপরও প্রভাব ফেলে। তাই বলে সাজগোজ করার আগেও যে শিশুর কথা ভাবতে হবে তা কি কেউ ভেবেছেন?

সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখানো হয়েছে গর্ভবতীরা মেকআপ ব্যবহার করলে শিশুর বুদ্ধি কম হয়। মেকআপের ব্যবহৃত বিভিন্ন রাসায়নিকের প্রভাবেই এমনটা হয় বলে জানান তারা। গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে পাবলিক লাইব্রেরি অব সায়েন্স ওয়ান নামক অনলাইন জার্নালে।

নিউইয়র্কের গবেষকরা ৪ ধরণের রাসায়নিকের অস্তিত্ব পেয়েছেন মেকআপ সামগ্রীতে। চুল শুকানোর যন্ত্র, নেল পলিশ, লিপস্টিক, হেয়ার স্প্রে ও বিভিন্ন সাবানে। মার্কিন বিজ্ঞানীর এ গবেষণায় দেখিয়েছেন প্রসাধনসামগ্রীতে ব্যবহৃত এ রাসায়নিকগুলো গর্ভের শিশুর জন্য ক্ষতিকর।

নিউইয়র্কের ৩২৮ জন মা ও তাদের সন্তানের ওপর জরিপ চালিয়ে তারা দেখেন. এধরণের ক্যামিকেল জন্মের পর শিশুর বুদ্ধিমত্তা ৬ ধাপ কমিয়ে দিতে পারে। আর প্রসাধন ব্যবহারকারী মায়েদের শতকরা ২৫ ভাগ শিশুর বুদ্ধিমত্তা স্বাভাবিকের চেয়ে কম।

শিশুর বুদ্ধির বিকাশে মায়ের বুদ্ধিমত্তা ও পারিবারিক পরিবেশের অবদানের কথাও স্বীকার করেছেন তারা। আর এরপরই মেকআপের রাসায়নিক প্রভাবের অবস্থান বলে দাবি বিজ্ঞানীদের।

এ রাসায়নিক উপাদান শুধু প্রসাধন সামগ্রী নয়, পিভিসি দরজা, পর্দা ও গাড়ির ড্যাশবোর্ড তৈরিতেও ব্যবহার করা হয়। এদের সূক্ষ্ম কণা খাবার এমনকি শ্বাস প্রশ্বাসের সঙ্গে দেহে ঢুকে যায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিষেধ সত্ত্বেও নামিদামি কোম্পানিগুলো তাদের পণ্যে এসব উপাদান ব্যবহার করছে। তাই প্রসাধন ব্যবহারের আগে এতে কী কী রাসায়নিক আছে, তা দেখে নিতে পরামর্শ দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।