প্রকাশ: ০৫:২০:০০ পিএম, ১২ মার্চ ২০১৮
ইউএস-বাংলার বিমান বিধ্বস্ত, নিহত পঞ্চাশের বেশি!

ঢাকা থেকে নেপালের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ইউএস বাংলার একটি বিমান দেশটির রাজধানী কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয়ে অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো এ তথ্য জানিয়েছে। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের ধারণা, হতাহতের সংখ্যা বাড়তে পারে। 

এর আগে বিএস-২১১ মডেলের ওই বিমানটি দুপুর ১২টা ৫১মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৬৭ জন যাত্রী নিয়ে কাঠমান্ডুর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এসময় বিমানটিতে ৪ জন ক্রু ছিল।  

ইউএস বাংলার কর্মকর্তারা জানান, বিমানটির আরোহীদের মধ্যে ৩৭ পুরুষ, ২৭ নারী ও দুই শিশু। যাত্রীদের মধ্যে ৩৩ জন ছিলেন নেপালের নাগরিক। 

নেপালের সংবাদ মাধ্যম কাঠমান্ডু পোস্টের খবরে বলা হয়, ১২ মার্চ, স্থানীয় সময় সোমবার ২টা ২০ মিনিটে বিমানটি অবতরণের সময় স্থানীয় একটি ফুটবল খেলার মাঠে বিধ্বস্ত হয়। 

প্রেম নাথ ঠাকুর নামে বিমানবন্দরের একজন মুখপাত্র জানান, বিধ্বস্ত হওয়া বিমানটি থেকে আহত অবস্থায় ২০ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। আহতদের কাঠমান্ডু মেডিকেল কলেজে ও সিনামানগালা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় আহত দুই যাত্রীর পরিচয় পাওয়ায় গেছে। তারা হলেন- বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের উম্মে সালিমা ও নাজিয়া আফরিন চৌধুরী

বিধ্বস্ত হওয়া বিমানটি থেকে দূর্গতদের উদ্ধারে নেপালের সেনাবাহিনী কাজ শুরু করেছে। এছাড়া কতৃপক্ষ বিমানবন্দরটি সাময়িক বন্ধ ঘোষণা করেছে, বাতিল করা হয়েছে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক সব ফ্লাইট। 

এদিকে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্ম অলি দুর্ঘটনা কবলিত স্থানে উপস্থিত রয়েছেন। কাঠমান্ডু পোস্ট জানায়, বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার খবরে তিনি ঘটনাস্থলে যান।

 

বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেছেন, অন্তত দুই ঘন্টা পর ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে।