প্রকাশ: ০৬:৩৫:০০ পিএম, ২৯ অক্টোবর ২০১৯
নতুন ধান্দায় ডিএসইর আইপিও রিভিউ টিম গঠন

স্বচ্ছ ও ভালো কোম্পানি’ পুঁজিবাজারে আনার লক্ষ্যে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) গঠন করা ‘আইপিও রিভিউ টিম’কে ধান্দার নতুন পথ হিসেবে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে পুঁজিবাজারের সাম্প্রতিক বিষয় নিয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘ডিএসই যে টিম গঠন করেছে তাতে একজন বিচারপতি ও একজন সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা রাখা হয়েছে। এই দুজনের স্বচ্ছতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। কিন্তু তাদের সামনে রেখে ডিএসইর অসাধুরা ধান্দার নতুন ফাঁদ পাতবেন।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, এই টিম দিয়ে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষা হবে না। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও ডিএসইর অসাধু কর্মকর্তারা যোগসজশ করে বাজারে দুর্বল কোম্পানি আনছে। আজ বাজারের যে দুরবস্থা তার জন্য সব থেকে বেশি দায়ী বিএসইসি।’

‘আমাদের সন্দেহ এই টিম গঠন করে ডিএসইর পরিচালকদের একটি অংশ প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) বাণিজ্যে মেতে উঠবে। সেই সঙ্গে অবৈধ প্লেসমেন্ট সুবিধা নেবে। ডিএসইর টিমের ওপর আমাদের কোনো আস্থা নেই।’

সোমবার (২৮ অক্টোবর) ৬ সদস্যের ‘আইপিও রিভিউ টিম গঠন করে ডিএসই। ডিএসইর দাবি এই টিম গঠনের ফলে আইপিওতে স্বচ্ছ ও ভালো কোম্পানি আসবে।

ডিএসইর স্বতন্ত্র পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. মাসুদুর রহমানকে প্রধান এবং লিস্টিং বিভাগের প্রধানকে সদস্য সচিব করে গঠন করা ডিএসইর আইপিও রিভিউ টিমে সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে- ডিএসইর স্বতন্ত্র পরিচালক বিচারপতি সিদ্দিকুর রহমান মিয়া, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মোস্তাফিজুর রহমান, শেয়ারহোল্ডার পরিচালক মিনহাজ মান্নান ইমন এবং প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) ও ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল মতিন পাটোয়ারীকে।

ডিএসই জানিয়েছে, প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন করা কোম্পানির প্রসপেক্টাস পর্যালোচনার জন্য এ কমিটি কাজ করবে। এ জন্য বিভিন্ন চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট প্রতিষ্ঠান ও আর্থিক বিশ্লেষক এমন ১০-১৫ জন বাছাই করে এক্সপার্ট প্যানেল করবে কমিটি। একটি কোম্পানির প্রসপেক্টাস পর্যালোচনা করতে এক্সপার্ট প্যানেলে থাকা বিভিন্ন চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট প্রতিষ্ঠান ও আর্থিক বিশ্লেষকদের মধ্য থেকে কমপক্ষে দুইজন এবং সর্বোচ্চ তিনজন কাজ করবেন।